1. rakib.bd19@gmail.com : Rakib Hasan : Rakib Hasan
  2. asim.vai5305@gmail.com : As : As Ilm
  3. geogatedproject364@gmail.com : Aymee : Aymee Hana
  4. hasanchy52@gmail.com : hasanchy :
  5. mahmuda0913@gmail.com : Mahmuda Akter Rozy : Mahmuda Akter Rozy
  6. Manikbau@gmail.com : Fayjul Islam Manik : Fayjul Islam Manik
  7. ghuddirpilot@gmail.com : Rafat Nur : Rafat Nur
September 23, 2021, 11:33 pm

হযরত নুহ আঃ এর মহাপ্লাবনের ঘটনার নতুন দিক উন্মোচনঃ

  • পোষ্টের সময় : Tuesday, June 8, 2021
  • 158 বার পঠিত
হযরত নুহ আঃ

হযরত নুহ আঃ মহাপ্লাবনের ঘটনা আমরা অনেকেই জানি। কিন্তু যেভাবে জানি তাতে বিস্তারীত বর্ননায় অনেক কিছূ অসম্পুর্ন রয়ে যায়। মুলত বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থ ও প্রাচীন প্রত্নতত্বের উপর নির্ভর করেই এরকম বিষয়গুলোর বিবরন লিপিবদ্ধ হয়ে থাকে। আজ এমন একটা প্রাচীন প্রত্নতত্ব নিয়ে আলোচনা করবো যাতে হযরত নুহ আঃ এর বেপারে নতুন কিছু তথ্য জানা যাবে।

প্রারম্ভিক নোটঃ

প্রাচীন যুগে কাগজ কলমের ব্যবহার ছিলোনা। মানুষ গাছের ছালে, পাথরে, মাটির তৈরী বিসকুটে খোদাই করে বিভিন্ন বিবরন লিখে রাখতো। যেমন আমি এই লেখাটি ফেসবুকে লিখে রাখছি। মাটি/পাথরের তৈরী বিসকুটের উপর লেখাগুলোকে সাধারনত ট্যাবলেট বলা হয়।

ঘটনার শুরুঃ

আরভিং ফিংকল, ব্রিটিশ মিউজিয়ামের মধ্য প্রাচ্য বিভাগের সহকারী রক্ষনাবেক্ষনকারী হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

ওনার লেখা একটা বইর মোড়ক উন্মোচনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন ডগলাস সিমন্ড নামের একজন ভদ্রলোক। পরীক্ষায় পাশ করার কারনে সিমন্ড এর বাবা তাকে কিছু প্রাচীন প্রত্নতত্ব নিদর্শন উপহার দেন যা সিমন্ড এর বাবার সংগ্রহে ছিলো।এর মধ্যে ছিলো কিছু প্রাচীন লিপি সমৃদ্ধ ট্যাবলেট, সিলিন্ডার সদৃশ্য বস্তু, প্রদীপ, প্রাচীন মিশর ও চীনের কিছূ সামগ্রী।

সিমন্ড এর বাবা ছিলেন একজন প্রাচীন কিউরি সংগ্রাহক ও গবেষক। ১৯৪০ এর দশকে তিনি এগুলো সংগ্রহ করেছিলেন, তিনি প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ইরাকে অবস্থান করছিলেন বলে জানা যায়। সিমন্ড তার উপহার সামগ্রী হতে একটা প্রাচীন ট্যাবলেট নিয়ে গিয়েছিলেন ফিংকলের বইর মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে। সেখানে গিয়ে তিনি ফিংকলকে প্রাচীন ট্যাবলেটটি দেখান।

মাটি দিয়ে প্রস্তুত এই লিপি লেখনি বা ট্যাবলেট এর উপর লেখার ভাষাটা ফিংকল এর কাছে পরিচিত মনে হলো !

১৮৭০ সালে জর্জ স্মিথ নামের একজন প্রত্নতত্ব গবেষক এরকম একটা গল্প সমৃদ্ধ ট্যাবলেট পেয়েছিলেন যা নিনেভা ট্যাবলেট নামে পরিচিত। যাইহোক, ফিংকল ট্যাবলেটটির উপর গবেষনা শুরু করেন। এবং তার গবেষনার ফলাফল থেকে কিছু তথ্য আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরছি যা হযরত নুহ আঃ এর বিষয়ে নতুন দিক উম্নোচন করবে।

সিমন্ড এর কাছ থেকে প্রাপ্ত ট্যাবলেট এর একটা ছোট বিবরন দেওয়া হলোঃ

✍️ ট্যাবলেটটিতে ৬০ লাইনের বিবরনি ছিলো।

✍️ এর দৈর্ঘ্য ১১.৫ সেন্টিমিটার, প্রস্থ্য ৬ সেন্টিমিটার।

✍️ এবং এর বিষয়বস্তু ছিলো প্রাচীন এক মহাপ্লাবনের উপরে।

✍️ গবেষনায় স্বিদ্ধান্ত হয়েছে ট্যাবলেটটি যিশু খ্রিস্টের জন্মের পুর্ব ১৭৫০ সালে লেখা হয়েছিলো।

আরভিং ফিংকল ট্যাবলেট এর ভাষা অনুবাদ করেন খুব সহজেই কারন ট্যাবলেটটি বেশ অক্ষত ছিলো। ট্যাবলেট এর উপর লেখাটা ইংরেজীতে অনুবাদ করার পর তা বাংলায় এরকম পড়তে শোনাবেঃ-

“মহান ঈশ্বর যখন বন্যার মাধ্যমে মানবজাতি নিশ্চিণ্হ করার স্বিদ্ধান্ত নেন, তখন মহান Enki-এনকি [**ট্যাবলেটে মহান ঈশ্বরকে এই নামে সম্বোধন করা হয়েছে] দয়াপরবশত একজন মানুষকে আগাম সংবাদ প্রেরন করেন যার নাম Atra-hasis-আতরা-হাসিস [** অনুমান করা যায় বাইবেল, তোরাহ, কোরআনসহ বিভিন্ন ধর্মগ্রন্থে উল্লেখ করা নুহ আঃ ই হচ্ছেন এই আতরা-হাসিস] । তিনি প্রস্তুত করেছিলেন একটা নৌকা যা আতরা-হাসিস এর নৌকা নামে পরিচিত ছিলো, এবং নৌকাটি ছিলো গোলাকার। আমার জানা মতে, কেউই সেই সম্ভাবনার কথা ভাবেনি [** ট্যাবলেট এর লেখক নিজের ধারনার কথা বলছেন, প্লাবন হবে এমন আশা করেনি তৎকালীন সময়ের মানুষেরা।] নৌকা তৈরীর জন্য ব্যবহার করা হয়েছে খেজুরগাছের মাধ্যমে প্রস্তুত করা দড়ি,কাঠ,আর গরম বিটুমিন। এর আয়তন ছিলো ৩৬০০ স্কয়ার মিটার [** বর্তমান হিসাবে তিনটি ফুটবল মাঠের সমান।] এর প্রতিটি দেয়াল ৬মিটিার উচু।

ব্যাস এটুকুই প্রকাশ করেছে ব্রিটিশ মিউজিয়াম। ট্যাবলেটটি ব্রিটিশ মিউজিয়ামে সংরক্ষিত রয়েছে। এবং তারা এর কিছূ অংশই প্রকাশ করেছে। যা আমি আপনাদের সামনে তুলে ধরলাম।

ফুটনোটঃ-

-প্রাচীন ট্যাবলেট হতে এটা জানা যায় হযরত নুহ আঃ কে তৎকালীন সময়ে আতরা-হাসিস নামে সম্বোধন করা হতো।

– হযরত নুহ আঃ এর নৌকার আকৃতি বর্তমান যুগের নৌকার মতো ছিলোনা। এটা ছিলো গোলাকার।

– নৌকাটির সাইজ ছিলো তিনটা ফুটবল মাঠের সমান।

– নৌকাটি খেজুর গাছের আশ নিয়ে তেরী দড়ি,কাঠ, বিটুমিনের মিশ্রনে প্রস্তুত হয়েছিলো।

– ট্যাবলেট এর লেখক মহান ঈশ্বরকে Enki-এনকি বলে সম্বোধন করেছেন।

– উপরোল্লিখিত তথ্যগুলো আমার নিজের মতামত নয়।

– ট্যাবলেট এর লেখক, অথবা গবেষক আরভিং ফিংকল উভয়ের দ্বারাই এই তথ্যগুলো প্রভাবিত হতে পারে। তাই নিজ বিবেচনায় তথ্যগুলোর উপর নির্ভর করবেন।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোষ্টটি শেয়ার করতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো পোষ্ট দেখুন...
© All rights reserved © 2021 Shial Mama
Theme Customized By BreakingNews